মাতৃগর্ভে আপনি যেভাবে ছিলেন , যেভাবে আপনার জন্ম হল ! দেখে নিন

0
Loading...

১) মায়ের ফ্যালোপিয়ান টিউবে প্রতি মাসে নিষিক্ত হওয়ার জন্য একটা করে মাত্র ডিম্বাণু আসে। লক্ষ লক্ষ শুক্রাণু আসে বাবার কাছ থেকে। যেকোনো একটা শুক্রাণু চান্স পায়। বাকিরা ফেইল।

২) একটি ডিম্বাণু

৩) ডিম্বাণুর দিকে এগিয়ে যাচ্ছে শুক্রাণু।

৪) ফ্যালোপিয়ান টিউব

৫) দুটো শুক্রাণু ডিম্বাণুর ভেতরে ঢুকার চেষ্টা করছে। আল্লাহ ভালো জানে কে হবে বাচ্চার বাপ।

৬) এই শুক্রাণুটি অবশেষে ঢুকতে পেরেছে। ইয়াহু! বিজয়ী শুক্রাণু

৭) জেতার মুহূর্তটি… ডিম্বাণুর ভিতরে শুক্রাণুর মাথা প্রবেশ করেছে

৮) শুক্রাণু আর ডিম্বাণু মিলিত হওয়ার পর, অর্থাৎ ডিম্বাণু নিষিক্ত হওয়ার পর জাইগোট তৈরি হয়। সেটা খুব দ্রুত বিভাজিত হতে শুরু করে। এই ছবিতে দেখা যাচ্ছে, বিভাজিত হয়ে একটা ব্লাস্টোসিস্ট গঠিত হয়েছে এবং সেটা জরায়ুতে প্রবেশ করেছে। এখানেই বড় হবে ভ্রূণ।

৯) আট দিনের মাথায় নিষিক্ত ডিম্বাণুর চেহারা। এটিকে এখন মানব ভ্রূণ নামে ডাকা যায়। ভ্রূণটি জরায়ুর দেওয়ালের সাথে আটকে আছে

১০) ভ্রূণের মস্তিষ্ক গঠিত হতে শুরু করেছে

১১) ২৮ দিন পরের ছবি। এক মাস বয়সী ভ্রূণটির দেহে এখনও কোনো কংকাল গঠিত হয়নি। শুধু একটি হৃদপিণ্ড আছে, যেটা ১৮তম দিন থেকে স্পন্দিত হতে শুরু করেছে

১২) চার সপ্তাহ বয়সী ভ্রূণ

১৩) ৫ সপ্তাহ বয়সী ভ্রূণ। মোটামুটি ৯ মিলিমিটার লম্বা। আপনি এখন তার চোখ, নাক আর মুখের জন্য তৈরি হওয়া ফুটোর সাহায্যে চেহারার আদলকে বুঝতে পারছেন

১৪) ৪০ দিন বয়সী ভ্রূণ। এসময় ভ্রূণের কোষগুলো fetal placenta তৈরি করে। এর মাধ্যমে ভ্রূণটি মায়ের রক্তপ্রবাহ থেকে পুষ্টি গ্রহণ, নিজ দেহ হতে বর্জ্য পদার্থ নিষ্কাশন, গ্যাসীয় আদান প্রদান সম্পন্ন করে।

১৫) আট সপ্তাহ বয়সী ভ্রূণ। দ্রুত বর্ধনশীল ভ্রূণটি ভ্রূণথলি বা এম্ব্র্যায়ো স্যাক-এর ভেতরে খুব নিরাপদেই আছে!

১৬) ১০ সপ্তাহ বয়সী ভ্রূণ। এর চোখের পাতা অর্ধেক বন্ধ। কিছুদিনের মধ্যে পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যাবে

১৭) ১৬ সপ্তাহ বয়সী ভ্রূণ। এটি তার হাত পা নাড়াচাড়া করতে কিংবা ছড়িয়ে দিতে শিখে গেছে

১৮) এসময়কার কংকাল মূলত তরুণাস্থি বা কার্টিলেজ দিয়ে তৈরি। সেই সাথে পাতলা চামড়া ভেদ করে সারা দেহে ছড়িয়ে পড়া রক্তনালিগুলো দেখা যাচ্ছে

১৯) ১৮ সপ্তাহ বয়স চলছে। মোটামুটি ১৪ সেন্টিমিটার লম্বা ভ্রূণ

২০) ১৯ সপ্তাহ বয়সী ভ্রূণ। এটা এখন বাইরের জগত থেকে আসা শব্দকে অনুভব করতে পারে!

২১) ২০ সপ্তাহ বা ৫ মাস চলছে। মোটামুটি ২০ সেন্টিমিটার লম্বা ভ্রূণটির পুরো মাথা আর কপাল জুড়ে পশমের মতো চুল দেখা যাচ্ছে। এ চুলকে বলে “lanugo”

২২) ২৪ সপ্তাহ বা ৬ মাস বয়সী ভ্রূণ

২৩) ২৬ সপ্তাহ বা সাড়ে ছয় মাস বয়সী ভ্রূণ

২৪) ৬ মাস চলছে। ছোট্ট মানুষটা জরায়ু থেকে বের হওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে।

২৫) ৩৬ সপ্তাহ বা ৯ মাস। আর কিছুদিনের মধ্যেই শিশুটি পৃথিবীর মুখ দেখবে!

লেনার্ট নিলস ছবিগুল তুলেছেন

বিঃ দ্রঃ প্রতিদিন মজার মজার রান্নাকরার অসাধারন সব রেসিপি এবং রুপ লাবণ্য টিপস আপনার ফেসবুক টাইমলাইনে পেতে আমাদের দুটি পেজ লাইক দিন!

রান্নাকরার অসাধারন সব রেসিপি

মজার রেসিপি/ রুপ লাবণ্য

Share.
[X]